মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪ , ৭.শ্রাবণ.১৪৩১

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০০:২১, ১৩ জানুয়ারি ২০২৪

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর বিরুদ্ধে মোকতাদিরের মানহানির মামলা

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর বিরুদ্ধে মোকতাদিরের মানহানির মামলা
আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী ও ফিরোজুর রহমান ওলিও

নির্বাচনী প্রচারে ‘আপত্তিকর’ বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ফিরোজুর রহমান ওলিওর বিরুদ্ধে একশ কোটি টাকার মানহানি মামলার আবেদন করেছেন ওই আসনে নির্বাচিত সংসদ সদস্য নবনিযুক্ত গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার বিকালে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া যুগ্ম জেলা জজ নজরুল ইসলামের আদালতে ওই আবেদন করেন, তবে বিষয়টি জানাজানি হয় শুক্রবার।

উবায়দুল মোকতাদিরের আইনজীবী আব্দুল জব্বার মামুন জানান, রোববার শুনানি করে আদালত আদেশ দেবে। তিনি জানান, সংসদ নির্বাচনের প্রচার চলাকালে গত ২৬ ডিসেম্বর স্বতন্ত্র প্রার্থী ফিরোজুর রহমান ওলিওর তার এক নির্বাচনি জনসভায় দাবি করেন, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মোকতাদির চৌধুরীকে ৩০-৩৫ বছর আগে তিনি ৫০ হাজার টাকা দিয়ে সাহায্য করেছিলেন এবং ইউনিভার্সিটি অব ব্রাহ্মণবাড়িয়াতেও টাকা দিয়েছেন।

বাদীর আইনজীবী বলেন, মোকতাদির ইউনিভার্সিটি অব ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান। কিন্তু তিনি ৩০ বছর আগে ওলিওরকে চিনতেনই না। ফলে তার কাছ থেকে টাকা নেওয়ারও প্রশ্ন ওঠে না। ওলিওরকে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমা চাইতে উকিল নোটিস পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু তিনি জবাব না দেওয়ায় আদালতে তার বিরুদ্ধে একশ কোটি টাকার মানহানির মামলার আর্জি জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে কথা বলতে ফিরোজুর রহমান ওলিওরকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ধরেননি।

গত ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সদর ও বিজয়নগর উপজেলা নিয়ে গঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার-৩ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী নৌকা প্রতীকে ১ লাখ ৫৮ হাজার ৮৭২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ওলিওর কাঁচি প্রতীকে পান ৬৪ হাজার ৩৭ ভোট।